চলে যাবো আমি।


চলে যাবো আমি শতবর্ষ পেছনে যেখানে ভালবাসতাম আপনাকে মনে প্রাণে। সেই ভালবাসা এখানে নেই বলেই আমি যাবো সেই আদিম প্রাচীনত্বে।


আমি তো জানি আপনি অপছন্দ করেন আমাকে এই বিষাক্ত সময়ে। এই পাপের ভাগী তো আমি আপনি নই। আপনার কি মনে পড়ে সেই হারানো পাহাড়ি নদীর কথা ওই পড়ন্ত বিকেলগুলোতে? কিন্তু সেই নদী তো এখনো বইছে প্রকৃতির উদার ভালবাসায়। আমি তো এখন আপনাকে আমন্ত্রণ করি যখন আপনাকে প্রয়োজন আমার স্বার্থে। কি হবে আমার আপনাকে নিমন্ত্রণ করে, এটা কি অর্থের অপচয় নয়? আমরা কি পারি না স্বার্থ ত্যাগের প্রাচীন শপথ নিতে?

আমি তো দেখি আমি সেই কাপুরুষ যে কখনো ভাবেনি এই উদার প্রকৃতির প্রেমের কথা। আমার কি সামর্থ্য হবে এক কণা বাতাসের মূল্য পরিশোধের?


আমি তো কিছুই শিখছি না আমার অহংকারের ভারে। একি বিষাক্ত মুখোশ পড়েছি আমি যে মুখোশে আপনি ভালবাসেন আমার মতো স্বার্থপরকে?


কেন যেতে চাই আমি শতবর্ষ পেছনে? ওখানে তো ছিল স্বর্গ। আমি কি খুঁজছি সেই পবিত্র প্রাচীনত্ব যেখানে ছিল না এই বিষাক্ত মন?

আপনার প্রশ্ন ছিল, “কেন হল এই বিষাক্ত পৃথিবী আজ?” যতদিন না পারছি আমি আপনাকে মন প্রাণ খুলে ভালবাসতে, আমি থাকবো এই বিষাক্ত মনে, বিষাক্ত পৃথিবীতে। আমার অপ্রচলিত নোংরা স্বার্থগুলো কেন যেন ভালবাসে সবাই। আপনি কি বিশ্বাস করেন আমার এই বুনো উত্তরে?

আমরা তো সেই প্রাচীন, আমি তো পারি না সেই প্রাচীনত্ব ভুলে যেতে। আমি কি সৃষ্টি করবো ভবিষ্যতের এক শ্বাপদসংকুল পৃথিবী, অথবা আমি খুঁজে নেবো সেই সুপ্ত স্বর্গ? এখনও তো দেরী হয়নি, আমরা তো পারি সেই প্রাচীনত্বে ফিরে যেতে। সেই ভোরের শিশির মেরামতে তো আমাকে ভুলে যেতে হবে আমার জঘন্য স্বার্থগুলো, আমি কি পারবো এটা?


Leave a Reply